কাটাছেঁড়া সারাতে সাহায্য করবে ঘরোয়া যে উপাদানগুলো

প্রতিদিনের রান্নাবান্নাতে কাটাকাটি করা তো হয়েই থাকে সকলের। আর কোন বিশেষ দিন মানে রান্নাবান্নার পরিমাণ বেশী, সাথে কাটাকাটির পরিমাণটাও বেশী। আর সেই বিশেষ দিনটা যদি হয়ে থাকে কোরবানির ঈদের দিন তাহলে তো আর কথাই নেই। রান্নাবান্নার জন্যে কাটাকাটির পাশাপাশি থাকে কোরবানির মাংস কাটার পর্ব। দা, বটি, ছুরি নতুন করে ধার করিয়ে এনে একেবারে প্রস্তুত থাকতে হয়।

তবে এই সকল প্রস্তুতির পাশাপাশি নিজের প্রতি খেয়াল রাখার কথা ভুলে গেলে চলবে না। এতো সকল কাজ এবং প্রচুর কাটাকাটির সময়ে অসাবধানতায় অনেক সময় হাত কেটে যায়। কাজের মধ্যে এমনভাবে হাত কেটে গেলে নিত্যদিনের ব্যবহার্য কিছু উপাদান দিয়েই খুব কম সময়ের মধ্যে ক্ষতস্থানের রক্তপাত বন্ধ করতে পারবেন আপনি।

আজকের এই ফিচারে জেনে নিন ঘরোয়া সহজ কিছু উপাদানের নাম যা সাহায্য করবে আপনার ক্ষতস্থানের রক্তপাত বন্ধ করতে এবং ক্ষতস্থান দ্রুত সারিয়ে তুলতে।

১/ হলুদ গুঁড়া

রান্না করার সময়ে পেঁয়াজ, মরিচ কিংবা টমেট কাটার সময়ে হাত কেটে গেলে দ্রুত হলুদ গুঁড়া লাগিয়ে নিন কেটে যাওয়া স্থানে।হাত কেটে যাওয়ার পরপরই হলুদ গুঁড়াকেটে যাওয়া স্থানে লাগিয়ে নিলে সেটা রক্তপাত বন্ধ করতে সাহায্য করবে এবংপরবর্তীতে ক্ষতস্থানে ইনফেকশন হতে বাঁধা দেবে।

২/ অ্যাপল সাইডার ভিনেগার (এভিসি)

অ্যাপল সাইডার ভিনেগারের চুলকানি প্রতিরোধ মূলক বৈশিষ্ট্যের জন্যে যেকোন ধরণের কাটা ছেঁড়ায় এসিভি দারুণ কাজে দেয়। কেটে যাওয়া ক্ষত দ্রুত সারিয়ে তুলতে এসিভি দারুণ উপকারী।  

৩/ চিনি

চিনি বেশী পরিমাণে খাওয়া আপনার স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর হলেও আপনার শরীরে কোথাও কেটে গেলে এই একই উপাদান ক্ষতস্থানের জন্য দারুণ উপকারী। কেটে যাওয়া থাকের উপর কিছু পরিমাণে চিনি ছড়িয়ে দিন। চিনি কেটে যাওয়া স্থানের পানি শোষণ করতে সাহায্য করে থাকে। তবে কেটে যাওয়া স্থানে চিনি দেওয়ার ১৫ মিনিট পর অবশ্যই পরিষ্কার পানি দিয়ে ক্ষতস্থান ধুয়ে নিবেন।

৪/ মধু

যে কোন ধরণের কাটাছেঁড়া এবং ক্ষতস্থানের জন্য মধু দারুণ উপকারী এবং এন্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান হিসেবে কাজ করে থাকে। মধু আপনার কেটে যাওয়া স্থানে ইনফেকশন হওয়া থেকে এবং ফুলে যাওয়া প্রতিরোধ করে।

এমনকি পুড়ে যাওয়া ক্ষত সারাতেও মধু জাদুকরীভাবে কাজ করে থাকে। বিভিন্ন গবেষণা থেকে জানা গেছে যে, পুড়ে যাওয়া ক্ষত সারাতে মধু ব্যবহার করলে সেটি ১১ দিনের মধ্যে ভালো হয়ে যায়। যেখানে মধু ছাড়া চিকিৎসা করলে আরো চারদিন বেশী সময় লাগে ভালো হতে।

৫/ অ্যালোভেরা

হাত কেটে গেলে দ্রুত অ্যালভেরা জেল লাগিয়ে নিন কেটে যাওয়া স্থানে। অ্যালোভেরা পাতা বাসাতে থাকলে পাতার দুই পাশের কাঁটা ফেলে দিয়ে পাতার মাঝ বরাবর কেটে অ্যালোভেরার ঘন অংশ বা অ্যালোভেরা জেল চামচ দিয়ে বের করে সরাসরি কেটে যাওয়া স্থানে লাগিয়ে নিন।

৬/ টিব্যাগ

চা হালকা এস্ট্রিঞ্জেন্ট হিসেবে কাজ করে। যা কাটাছেঁড়া এবং কামড়ের ক্ষত সারিয়ে তুলতে সাহায্য করে থাকে। টি ব্যাগ কাটা স্থানে সরাসরি লাগালে রক্তপাত বন্ধ হতেও সাহায্য করে থাকে।

সূত্র: দ্যা টাইমস অফ ইন্ডিয়া

পালংনিউজ টুয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।